ভারতীয় রুপির অনিশ্চয়তা কাটছে না; দক্ষিণ এশিয়ার সেরা মুদ্রা এখন পাকিস্তানী রুপি

পাকিস্তানি রুপির মান সোমবার ছয় মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে। ১৫৮.৯ রুপি এখন এক মার্কিন ডলারের সমান। ১ অক্টোবর থেকে মার্কিন ডলারের বিপরীতে পাকিস্তানী রুপির মান বেড়েছে ৩.১%। এশিয়ায় তাদের সামনে আছে শুধু দক্ষিণ কোরিয়া আর ইন্দোনেশিয়া, যাদের মুদ্রার মান বেড়েছে যথাক্রমে ৪.৫% ও ৩.৬%।

আরিফ হাবিব লিমিটেডের বিশ্লেষক সানা তাওফিক ডনকে বলেন, “রেমিটেন্স প্রবাহ বৃদ্ধি (অর্থবছরের শুরু থেকেই প্রতি মাসে ২ বিলিয়ন ডলার), পাঁচ বছরের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো চলমান অ্যাকাউন্টে উদ্বৃত্তি (৭৯২ মিলিয়ন ডলার), যেখানে গত বছর এ সময়ে ঘাটতি ছিল ১.৪৯ বিলিয়ন ডলার, এবং সেই সাথে সব মুদ্রার বিপরীতে ডলারের মান পড়ে যাওয়ায় রুপির এই সামগ্রিক মান বেড়েছে”।

পাকিস্তান জরুরি ঋণ হিসেবে ইন্টারন্যাশনাল মনিটারি ফাণ্ড থেকে ১.৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ নিয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারীর প্রেক্ষিতে বিশ্ব ব্যাংক থেকে অর্থনৈতিক সহায়তা পেয়েছে পাকিস্তান। মার্কিন ডলারের বিপরীতে রুপির এই মান বৃদ্ধি দেশে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করবে।

তবে, ইসলামাবাদকে সৌদি আরবের ৩ বিলিয়ন ডলারের মধ্যে ২ বিলিয়ন ডলার পরিশোধ করতে হবে। চলতি বছরের মে মাসে এক বিলিয়ন ডলার এরই মধ্যে পরিশোধ করা হয়েছে।

পাকিস্তান হয়তো চীনের কাছ থেকে ২ বিলিয়ন ডলার পেতে পারে, সৌদি আরবের ১ বিলিয়ন ডলার পরিশোধের সময় যেমনটা তারা পেয়েছিল। অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক সিনিয়র কর্মকর্তা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

চায়না পাকিস্তান ইকোনমিক করিডোরের (সিপিইসি) ধীরগতির কারণে চীনা কর্তৃপক্ষ ব্যক্তিগত পর্যায়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন। কিন্তু দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের কৌশলগত দিকের কথা বিবেচনা করে তারা ইসলামাবাদকে হয়তো ছাড় দিতে পারে।

ইসমাইল ইকবালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মুস্তাফা ব্লুমবার্গকে বলেন, “মার্কিন নির্বাচন যেহেতু শেষ হয়ে গেছে এবং ডলারের মান বাড়তে শুরু করেছে, সে ক্ষেত্রে রুপির ঊধ্বমুখী গতিটা আবার পাল্টে যাবে”।

অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে মার্কিন ডলার শক্তিশালী হওয়ার সাথে সাথে ভারতীয় রুপির দরপতন হয়েছে সব সময়। তাছাড়া অপরিশোধিত তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় এবং কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে ভারতীয় রুপির মান আরও পড়ে গেছে।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন যে, মুদ্রা বাজারে যে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেন বিজয়ী হওয়ায় সেই পরিস্থিতিটা স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

সূত্র: সাউথ এশিয়ান মনিটর ও ইউরেশিয়ান টাইমস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *