ভূমিকম্পের পর তুরস্কে দ্রুতগতিতে চলছে পুনর্বাসন

তুরস্কে ভূমিকম্প কবলিত এলাজিগ ও মালাতিয়া প্রদেশে পুনর্বাসন প্রচেষ্টা দ্রুতগতিতে চলছে এবং ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলগুলির স্কুলগুলি ১০ ফেব্রুয়ারি পুনরায় চালু হওয়ার কথা রয়েছে।

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোলায়মান সয়লো সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন বলে আনাদুলু এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে।

সোলায়মান সয়লো বলেন, প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগানের নির্দেশে এলাজিগ ও মালাতিয়ায় মোট ৪৪ মিলিয়ন তুর্কি লিরা (প্রায় $৭.৪ মিলিয়ন ডলার) সরবরাহ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রায় ১০০ মিলিয়ন তুর্কি লিরা ($১৭ মিলিয়ন ডলার) নাগরিকরা বিভিন্ন দাতব্য প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সংগ্রহ করেছেন। পুনর্বাসন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে এগিয়ে চলছে এবং ইলাজিগ বা মালাতিয়ায় জনসাধারণের বিশৃঙ্খলার কোনো ঘটনা ঘটেনি।

ইলাজিগ এবং মালাতিয়ার দোগানিয়ল, পুত্রজ, কালে এবং বাটালগাজী জেলার স্কুলগুলো আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি পুনরায় চালু হবে।

পরিবেশ ও নগরায়ণমন্ত্রী মুরাদ কুড়ুম বলেছেন, পুনর্বাসন চেষ্টার অংশ হিসাবে আমরা মোট ৬,৪০০ টি বাড়ি তৈরি করবো। ইলাজিগের ৩,৮৫০ টি এবং মালাতিয়ায় ২,৫৫০ টি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী কাহিরুদ্দিন কোকা বলেছেন, ৬৪ জন এখনও হাসপাতালে ভর্তি আছেন এর মধ্যে ৭ জনকে স্পেশাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ পর্যন্ত ৪১ জন নিহত হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় রাত ৮ টা ৫৫ মিনিটে তুরস্কের পূর্বাঞ্চলীয় ইলজিগ প্রদেশে ৬.৮ মাত্রার এক শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে যার কেন্দ্রস্থল ছিল এলাজিগের সিভ্রিস জেলাতে। এটি সিরিয়া ও জর্জিয়া সহ প্রতিবেশী দেশগুলিতেও অনুভূত হয়েছিল।

সূত্র: আনাদুলো এজেন্সি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *