সময়মতো গেট না ফেলায় রেললাইনে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, শিক্ষার্থী ও পুলিশসহ নিহত ৩

গেটম্যান সময়মতো গেট না ফেলায় চট্টগ্রামে ঝাউতলা লেভেল ক্রসিংয়ে ডেমু ট্রেনের সাথে বাস ও সিএনজি অটোরিকশার ত্রিমুখী সংঘর্ষে পুলিশসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন হলেন ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল মনির হোসেন।

এছাড়া এ ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন সিএনজি চালক সৈয়দ বাহাউদ্দিন আহমেদ (৩০) এবং পাহাড়তলী কলেজের শিক্ষার্থী সাজ্জাদ (১৯)।

স্থানীয়রা জানান, ঝাউতলা রেলগেটের এক পাশে লোহার বার ফেলা ছিল। তবে অন্য পাশ ছিল খোলা। ওই পাশ দিয়ে রেললাইনে উঠে পড়ে বাস, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও টেম্পো। এ সময় নাজিরহাট থেকে চট্টগ্রাম স্টেশনগামী ডেমু ট্রেন চলে আসলে মারাত্মক সংঘর্ষ হয়।

এতে ৩টি গাড়ি দুমড়ে মুচড়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, গেটম্যান আলমগীরের দায়িত্বে অবহেলার কারণেই এ দুর্ঘটনা। তিনি সময়মতো গেট না ফেলায় গাড়িগুলো রেললাইনের ওপর চলে আসে।

ট্রাফিক পুলিশ সদস্য মনির গাড়িগুলোকে সংকেত দিলেও সেগুলো থামেনি। থামানোর চেষ্টা করতে গিয়ে তিনি নিজেও ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান। দুর্ঘটনার পর থেকে গেটম্যান আলমগীর পলাতক।

ঘটনাস্থলে চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশ সুপার হাসান চৌধুরী জানান, রেলক্রসিংয়ে ডেমু ট্রেনের সাথে ত্রিমুখী সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে ৩ জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছে।

রেল সিগনাল অমান্য করার কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় রেলওয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল গফুরের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *