শুধু নভেম্বরেই সড়কে প্রাণ গেছে ৫৪ শিক্ষার্থীর

গত নভেম্বর মাসে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে মোট ৫৪ জন শিক্ষার্থীর।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে শনিবার ‘নভেম্বর মাসের সড়ক দুর্ঘটনার প্রতিবেদন’ শীর্ষক একটি পরিসংখ্যান প্রকাশ করা হয়েছে।

সেখানে দেখা গেছে, গত নভেম্বর মাসে দেশে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ৩৭৯টি।

এতে নিহত হয়েছেন ৪১৩ জন এবং আহত ৫৩২ জন। নিহতের মধ্যে নারী ছিলেন ৬৭ এবং শিশু ৫৮ জন।

এই প্রতিবেদনে নভেম্বর মাসের সড়ক দুর্ঘটনার যাবতীয় তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

বলা হয়েছে, এই একমাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও নটরডেম কলেজের ২ জনসহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ৫৪ জন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে।

পাশাপাশি একই সময়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকসহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজ-মাদরাসার ১১ জন শিক্ষক নিহত হয়েছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

সর্বশেষ গত ২৯ নভেম্বর রামপুরায় বাসচাপায় মাঈনুদ্দিন নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। মাঈনুদ্দিন রামপুরা একরামুন্নেছা স্কুলের শিক্ষার্থী ছিল।

এ ছাড়া তার ঠিক চারদিন আগে গত ২৪ নভেম্বর গুলিস্তানে ময়লা গাড়ির ধাক্কায় নাঈম হাসান (১৭) নামে নটরডেম কলেজের এক শিক্ষার্থী নিহত হয়। বর্তমানে এর প্রতিবাদে নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজধানীতে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা।

এ দিকে, সড়কে দুর্ঘটনা রোধ, গণপরিহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকরসহ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সামনে শনিবার (৪ ডিসেম্বর) এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় অভিযোগ করা হয়, সরকার হাফ পাসের ঘোষণা দিলেও তা পুরোপুরি কার্যকর হয়নি।

অনেক বাসে শিক্ষার্থী উঠানো হয় না এবং তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করা হয়। সংগঠনের মহাসচিব বলেন, পরিবহন খাতে নেতৃত্ব দানকারীরাই সড়কে অব্যবস্থাপনার জন্য দায়ী।

যা পরিবর্তনে মালিক-শ্রমিক নেতৃত্বে পরিবর্তন আনা জরুরি। সড়ক নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা নিশ্চিতে ২০ দফা সুপারিশ তুলে ধরে যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *