ভারতে মাদরাসায় হিন্দু ধর্মগ্রন্থ পড়ানো মুসলমানদের ধর্মীয় স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের শামিল’

ভারতের নতুন জাতীয় শিক্ষানীতির আওতায় দেশটির শতাধিক মাদ্রাসায় গীতা, বেদ বা রামায়নের মত হিন্দু ধর্মীয়গ্রন্থ পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্তে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে খেলাফত মজলিস।

আজ রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেন, ভারতের হিন্দুত্ববাদী সরকার ‘প্রাচীন ভারতীয় জ্ঞান ও পরম্পরা’ নামে নতুন একটি বিষয় চালু করে মুসলমানদের মাদ্রাসাগুলোতে মূলত হিন্দু ধর্মগ্রন্থ পড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে, নি:সন্দেহে তা ধর্মীয় স্বাধীনতার হস্তক্ষেপ।

এর মাধ্যমে মুসলিম প্রজন্মকে সুকৌশলে হিন্দুত্ববাদী আগ্রাসনের শিকারে পরিণত করা হবে। ভারত সরকারের এ ধরণের উদ্যোগ মুসলমানদের ধর্মীয় স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের শামিল।

বহুত্ববাদী সংস্কৃতি, ভাষা ও ধর্মের দেশ ভারতে জোর করে মুসলমানদের উপর কোন কিছু চাপিয়ে দেয়া কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় অবিলম্বে ভারত সরকারকে মাদ্রাসাগুলোতে হিন্দুগ্রন্থ পড়ানোর সিদ্ধান্ত বাতিল এবং মুসলিম জাতিসত্তা বিলোপ সাধনের অপতৎপরতা বন্ধ করার জোর দাবি জানান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *